Breaking News
Home / SOCIAL WORKS / TATHYASAMAJ::তথ্যসমাজ

TATHYASAMAJ::তথ্যসমাজ

INTRODUCTION

তথ্যসমাজ

মানুষের সংঘবদ্ধভাবে জীবনযাপনের ইতিহাস অতিব প্রাচীন । জীবনকে উন্নততর ও আনন্দময় করে তোলার নিয়ত প্রচেষ্টায় নিমগ্ন থেকেছে গোষ্ঠীবদ্ধ / সমাজবদ্ধ মানুষ । এই প্রকৃতি বা বিশ্বব্রহ্মান্ডও মানুষের চিন্তাচেতনার সহায়ক নানান যুগান্তকারী উপাদানের যোগান অব্যাহত রেখেছে । একেক সময় একেকটি আবিষ্কার বিরাট পরিবর্তন এনেছে বৃহত্তর মনুষ্যসভ্যতায় । আগুন জ্বালাতে শেখা বা আগুনের ব্যবহার যদি তার সূচনা হয়, সভ্যতায় সর্বসাম্প্রতিক পরিবর্তনটি এসেছে তথ্যপ্রযুক্তি / ইন্টারনেটের প্রসারের মধ্য দিয়ে । বলা হয় শিল্পবিপ্লবের মধ্য দিয়ে সূচিত হয়েছিল আধুনিক যুগের । কম্পিউটারের আবিষ্কার ও তার ব্যাপক প্রচলনে যার ইতি । তথ্যপ্রযুক্তি ও আন্তর্জালের ব্যাপক প্রসারের মধ্য দিয়ে সূচনা হল এখনকার এই তথ্যপ্রযুক্তির যুগ বা i-যুগ ।

আমরা শূন্য দশকের সূচনালগ্ন থেকেই জানাচ্ছি যে এই সময়টা আধুনিক নয় , অধুনান্তিক বা নতুন নয় । এটা তথ্যপ্রযুক্তির সময় । এই যুগ i-যুগ । আর একটা সমাজব্যবস্থার সার্বিক উন্নয়ন ঘটাতে গেলে যুগোপযোগী চিন্তাচেতনা-ই পারে উন্নয়নে সেরা সহায়কের ভূমিকা নিতে । তাই আজকের i-যুগের দাবি / লক্ষণগুলি মাথায় রেখে সামাজিক উন্নয়নে যুগোপযোগী চিন্তাভাবনা শুরু করেছি আমরা । এই চিন্তাচেতনা হল i-চিন্তন / iConcepts বা তথ্যচিন্তা । তথ্যই জ্ঞান । এবং প্রকৃত জ্ঞান-ই পারে একটি জাতির পরিপূর্ণ বিকাশ ঘটাতে । তো এই i-চিন্তন বা তথ্যচিন্তার মধ্য দিয়ে সমাজের সার্বিক ক্রমবিকাশের লক্ষ্যে ১৪১২ সালের ১৩ বৈশাখ পশ্চিম মেদিনীপুরের সিংহপুরে তথ্যসমাজ প্রতিষ্ঠিত হয় । তথ্যসমাজ একটি সমাজসেবামূলক অলাভজনক উদ্যোগ । ১৪১২ থেকে দীর্ঘ আট বছর আমরা সাহিত্যচর্চায় দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেও, অন্যান্য সামাজিক উন্নয়নে তেমন কোনো ঘোষিত কর্মসূচি গ্রহণ করতে পারিনি । কিন্তু বর্তমানে ১৪২০ সালের ১৩ বৈশাখ বাৎসরিক সভায় আমরা নতুন করে পথ চলার শপথ গ্রহণ করছি । নবপর্যায়ে আমরা পূর্ববর্তী পরিকল্পনার পাশাপাশি i-চিন্তনকে সামনে রেখে নতুন করে পরিকল্পনা গ্রহণ করছি । যা আগামী দিনে আমাদের পথ চলার সহায়ক হবে । আমরা i-চিন্তনের মধ্য দিয়ে আমাদের সুনির্দিষ্ট কর্মসুচিগুলিতে মনযোগী হব ।

–সৌমিত্র রায়

iSociety